চীন-রাশিয়ার কড়া সমালোচনায় কাদের

শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭: একদিকে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ প্রদান, অন্যদিকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে মিয়ানমারের পক্ষে অবস্থান নেয়ায় চীন ও রাশিয়ার কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দির পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ সমালোচনা করেন।

কাদের বলেন, ‘জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের মুক্ত আলোচনায় চীন ও রাশিয়া রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় মিয়ানমারের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। এর মধ্যে আবার চীন মানবিক সাহায্য পাঠাচ্ছে। কিন্তু একদিকে মানবিক সাহায্য, অন্যদিকে রোহিঙ্গা নির্যাতনকেও সমর্থন করা দ্বিচারিতা। আমি আশা করব, বৃহৎ শক্তিগুলো এই দ্বিচারিতা থেকে সরে আসবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘মানবিক সাহায্য যারা করতে চান করবেন। কিন্তু নিরাপত্তা পরিষদে মিয়ানমারের বর্বর গণহত্যাকে সমর্থন করা দুঃখজনক ও দুর্ভাগ্যজনক। আমি আশা করি, এটাই তাদের শেষ পদক্ষেপ নয়।’

তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, চীন ও রাশিয়া এ মানবিক সংকটে, মর্মান্তিক পরিস্থিতিতে মানবতার, সত্য, ন্যায় ও যৌক্তিকতার পক্ষে অবস্থান নিবে। দ্বিচারিতা আমরা আশা করি না। অত্যাচারী ঘাতকদের সমর্থন এবং নিপীড়তদের মানবিক সাহায্য দ্বিচারিতা। তা সমর্থনযোগ্য নয়। আমরা আশা করি, তারা এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে।’

কাদের বলেন, ‘চীন ও রাশিয়া বৃহৎ শক্তি। তারাও আমাদের বন্ধু দেশ। এ মানবিক সংকটে তারা যথাযথ ভূমিকা পালন করবে, আশা করি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এ মানবিক সংকটে আমাদের সাহায্যের অভাব নেই। ভারত আমাদের প্রতিবেশী দেশ, তারাও আমাদের সাত হাজার টন ত্রাণ সাহায্য দিয়েছে; যার প্রথম চালান আমি নিজেই গ্রহণ করেছি। সাহায্য আমরা পাচ্ছি, আমাদের দেশের ভেতর থেকেও এত সাহায্য আসছে যে, এখনও আমাদের সরকারি ত্রাণ ব্যবহারের প্রয়োজন হয়নি।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত সেনগুপ্প, সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার পাল, ঢাকা মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিএল চ্যাটার্জী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes