ফেসবুকে ৯ কোটি মানুষের তথ্য ফাঁস

ফেসবুকের মাধ্যমে প্রায় নয় কোটি মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়ে গেছে। একটি ‘কুইজ অ্যাপ’-এর মাধ্যমে ওইসব ডেটা পৌঁছে গেছে ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’ নামে এক ফার্মের হাতে। সম্প্রতি এই তথ্য ফাঁসের কথা সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক নিজেই স্বীকার করেছে।

এক মার্কিন সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে প্রথম এই তথ্য ফাঁসের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। অন্তত পাঁচ কোটি মানুষের ডেটা ফাঁস হয়ে যাওয়ার ধারণা করা হয়েছিল ওই রিপোর্টে। কিন্তু ফেসবুক নিজেই জানিয়েছে, সেই সংখ্যাটা আসলে ৮ কোটি ৭০ লাখ, যা প্রাথমিক ধারণার থেকেও অনেকটাই বেশি।

বুধবার অনলাইনে একটি পোস্টের মাধ্যমে এই স্বীকারোক্তি করেছে ফেসবুক। তারা জানিয়েছে, ২ লাখ ৭০ হাজার মানুষ ওই কুইজ অ্যাপটি ডাউনলোড করেছিল। আর ওইসব ফেসবুক ব্যবহারকারী ও তাদের ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা বন্ধুদের তথ্য এক রিসার্চারের হাতে চলে যায়। সেই ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’র হাতে ওই তথ্য তুলে দেয়। এটা ফেসবুকের নির্দেশিকার বিরোধী বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

ফেসবুক আরও জানিয়েছে যে, যাদের তথ্য ফাঁস হয়েছে তাদের নিউজ ফিডে জানিয়ে দেওয়া হবে। আগামী ৯ এপ্রিল থেকে সেই নোটিফিকেশন দেবে ফেসবুক।

গত কয়েকদিন ধরেই ফেসবুকের এই তথ্য ফাঁসের বিষয়টি নিয়ে চর্চা হচ্ছিল। এদিন ফেসবুক নিজেদের প্রাইভেসি পলিসিও আপডেট করেছে। ফেসবুক একটি নতুন সেকশন এনেছে, যেখানে ফেসবুক ব্যবহারকারী চাইলে তাদের ফোনের তথ্য “upload, sync or import” অপশনে গিয়ে শেয়ার করতে পারে। এতে কোনো বন্ধুকে খোঁজা সহজ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes