মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিরই নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকা উচিত : নূর

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কেবল মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিরই অংশগ্রহণের সুযোগ থাকা উচিত।
তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও স্বাধীনতাবিরোধীরা ক্ষমতায় আসবে কি আসবে না- এ নিয়ে কথা বলা ও চিন্তার সুযোগ থাকা উচিত নয়। মুক্তিযুদ্ধবিরোধীদের এদেশে রাজনীতি করা ও নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ চিরতরে বন্ধ হওয়া দরকার।

মন্ত্রী আজ বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র আয়োজিত ‘গণহত্যা-বধ্যভূমি ও গণকবর জরিপ’ বিষয়ক দিনব্যাপী সেমিনার উদ্বোধনকালে এই কথা বলেন।

গণহত্যা জাদুঘর ট্রাস্টের ট্রাস্টি, বিশিষ্ট লেখক ও সাংবাদিক শাহরিয়ার কবিরের সভাপতিত্বে সেমিনারের উদ্বোধন অধিবেশনে সূচনা বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।
সংস্কৃতিচর্চা কখনো মুক্তিযুদ্ধ ও এর ইতিহাস বাদ দিয়ে হতে পারে না উল্লেখ করে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আমরা একাত্তরের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আজও আদায় করতে পারিনি- এটি অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয়। অন্যদিকে, রোহিঙ্গা দমন-নির্যাতন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে। অথচ একাত্তরের গণহত্যা ছিল এর চেয়ে ব্যাপক, ভয়াবহ ও বীভৎস। এ গণহত্যার বিষয়টি কেবল নতুন প্রজন্মের কাছে নয়, সারাবিশ্বের কাছে আরো বিশদভাবে তুলে ধরা উচিত।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, একাত্তরের গণহত্যার এ বীভৎসতা কোনো গোপন করার বিষয় নয়। বীরাঙ্গনাদের নির্যাতন কোনো লজ্জার বিষয় হিসেবে দেখা উচিত নয়, বরং জনসম্মুখে এনে তাদের সাহসিকতা, নির্যাতন ও কষ্টের কথা বলার সুযোগ করে দেয়া উচিত।

মন্ত্রী এসময় গণহত্যা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নিয়ে এ ধরনের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও যুগান্তকারী কাজের জন্য গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্রকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

তিনি আরো বলেন, এ ধরনের কাজগুলো মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় হওয়া দরকার। সংস্কৃতি ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় যৌথভাবে করলে এটি আরো বেগবান হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes