গরমে অন্দরে থাকুক প্রশান্তি

অসহ্য গরম! বাইরের তীব্র রোদ থেকে ঘরে ফেরার পর, ছোট হোক আর বড় হোক, আমরা অন্দরে একটু প্রশান্তি খুঁজে পেতে চাই। শুধু সারাক্ষণ এসি-ফ্যান চালিয়ে রাখলেই যে আপনি অন্দরে প্রশান্তি খুঁজে পাবেন, তা কিন্তু নয়। অন্দরের সাজসজ্জার দিকেও নজর দেওয়া উচিত। যাতে করে অন্দরে পা দেওয়া মাত্র একটা প্রশান্তিভাব চলে আসে। যেন শরীরের অবসন্নতাকে ছাপিয়ে মনের মধ্যে একটা প্রফুল্লতা চলে আসে। অন্দরে যদি একটু প্রকৃতির ছোঁয়া না থাকে তাহলে অন্দরসজ্জা অপূর্ণ থেকে যায়।

অন্দরে বাহারি রকম পাত্রে গাছ লাগালে যেমন দেখতে সুন্দর লাগে, তেমনি একটা মনোরম পরিবেশও তৈরি হয়। মনমাতানো অর্কিড বা বেলিফুলের সুবাসে আপনার অন্দর মহল মুখরিত হয়ে উঠতে পারে। আপনার বাসার ছোট বেলকুনিতে লাগাতে পারেন বিরুত্ জাতীয় কিছু গাছ; যেমন—জবা, বেলি ইত্যাদি।

ডালপালা মেললে যাতে করে আপনি বারান্দার বাইরে ডালপালা দিতে পারেন। এছাড়া ছোট ছোট টবে ছোট ছোট গুল্ম জাতীয় কিছু ফুলের গাছ লাগাতে পারেন। তবে যে গাছই লাগান না কেন, এটা লক্ষ রাখতে হবে যে, বারান্দায় ঠিকমতো আলো-বাতাস আসছে কি না। ইনডোর প্ল্যান্ট হলো যেসব গাছ কম সূর্যের আলো ও ছায়ায় বেড়ে উঠতে পারে। যেমন—পাতাবাহার, ক্যাকটাস, চাইনিজ পাম, পনিটেইল পাম, পেপেরোমিয়া, জিজি প্ল্যান্ট, বাহারি কচু, মথ অর্কিড, এরিকা রোজ, কেবি রোজ, বাঁশপাতা, গ্রেপ আইভি, ইংলিশ আইভি, ড্রেসিনা, আইভি লতা, কুইনস টিয়ারস (Queens Tears), পেপেরোমিয়া ইত্যাদি।

ইনডোর প্ল্যান্টের জন্য খুব বেশি আলো-বাতাসের দরকার হয় না, কিন্তু একদম বদ্ধ ঘর হলেও চলবে না। যত্নের পাশাপাশি ঘরে আলো-বাতাসের উপযুক্ত ব্যবস্থা রাখবেন। ঘরের ভিতরে গাছ লাগানোর চলটা এখন প্রায় বাড়িতেই দেখা যায়। আর এটা এখন প্রমাণিত যে, গাছ থাকলে গাছ কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করে ঘর ঠাণ্ডা রাখে। এছাড়া আপনার ইচ্ছে হলে ঘরের যেখানে একটু জায়গা আছে, সেখানেই গাছ রাখতে পারেন। গাছ আপনার মন ও শরীর দুটোকেই ভালো ও ফুরফুরে রাখবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes