নেইমারহীন পিএসজির জয়

0
14

খর্বাশক্তির গুইনগাম্পের কাছে হেরে লিগ কাপ থেকে বিদায় নিয়েছে পিএসজি। তবে জয়ে ফিরতে সময় লাগল না দ্য পারিসিয়ানদের। ফরাসি লিগ ওয়ানে নেইমারকে ছাড়া এমিয়েঁকে ৩-০ গোলে হারিয়েছেন তারা।

গেল বুধবার কোয়ার্টার ফাইনালে ২-১ গোলে হেরে ফ্রেঞ্চ কাপ থেকে বিদায় নেয় পিএসজি। হারের ক্ষত নিয়ে শনিবার এমিয়েঁর বিপক্ষে খেলতে নামে তারা। তবে টেবিলের তলানির দলটির বিপক্ষে তাদের শুরুটা ছিল হতাশাজনক। এ ম্যাচে বিশ্রাম দেয়া হয় নেইমারকে।

ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরলেও প্রথমার্ধে গোলমুখ খুলতে পারেনি পিএসজি। এ অর্ধে বেশ ক’টি সহজ সুযোগ নষ্ট করে দলটি। দ্বিতীয়ার্ধে শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। ৫৭ মিনিটে সফল স্পট কিকে বল জালে জড়িয়ে দলকে লিড এনে দেন এডিনসন কাভানি। স্বাগতিকদের ডি বক্সে অ্যালেক্সিস ব্লিনের হ্যান্ডবলে পেনাল্টি পান তারা। এবারের লিগে এটি উরুগুয়ান স্ট্রাইকারের ১১তম গোল।

এগিয়ে গিয়ে ভীষণ আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠেন কাভানিরা। ঘন ঘন আক্রমণে প্রতিপক্ষকে ব্যতিব্যস্ত রাখেন তারা। ৬৬ মিনিটে আক্রমণ সামলাতে গিয়ে বাজে ট্যাকল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন খালেদ আদেনন। ফলে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। এতে ১০ জনের দলে পরিণত হয় এমিয়েঁ।

ফলে পিএসজির জয়ের পথ আরও পরিষ্কার হয়ে যায়। পরে প্রতিপক্ষের জালে আরও দুইবার বল পাঠায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। ৭০ মিনিটে কাভানির ক্রস থেকে নিশানাভেদ করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। এ মৌসুমে এটি বিশ্বকাপের সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের ১৪তম গোল।

এমিয়েঁ শিবিরে শেষ পেরেক ঠুকেন মারকুইনহোস। ৭৯ মিনিটে ঠিকানায় বল পাঠান তিনি। এতে বিজয়োল্লাসে মাতে পিএসজি। দুর্দান্ত এ জয়ে ১৮ ম্যাচ শেষে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চূড়ায় টমাস টুখেলের শিষ্যরা। দুই ম্যাচ বেশি খেলে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে লিঁল।

(প্রিয় পাঠক, সবুজ বাংলা অনলাইনে পরবাস বিভাগে ও দেশি বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে ও দেশে  আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয় Email:lamiaakter1015@gmail.com)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here