ছাত্রলীগের সন্ত্রাসবিরোধী বিক্ষোভ

0
13

উগ্র সাম্প্রদায়িকতা এবং স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি বিএনপি-জামায়াতের নাশকতা, জ্বালাও-পোড়াও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী এ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অংশ নেন।

মিছিলটি পলাশী মোড় থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়।

মিছিল শেষে সমাবেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ছাত্রলীগ সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় বলেন,  ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আছে বলেই স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিরা ভয় পায়, আজকে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে কোনও সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথাচাড়া দিতে পারবে না। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যেমন ধানকেটে কৃষকের পাশে থেকেছে, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যেই হাত দিয়ে অসহায় মানুষের মাঝে ত্রান-সাহায্য দিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত মৃত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন করেছে, সেই হাত স্বাধীনতা বিরোধীদের হটানোর জন্য কাজ করবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘জাতির পিতাকে নিয়ে দেশবিরোধী কুচক্রী মহল, যারা পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে। তারা আবার ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্তি করার চেষ্টা করেন।

মামুনুল হককে উদ্দেশ্য করে হুশিয়ারি দিয়ে জয় বলেন, জাতির পিতার ভাষ্কর্য নিয়ে কথা বলার কোন ধৃষ্টতা দেখান, ছাত্রলীগ এর দাঁতভাঙা জবাব দিবে।’

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ‘যারা সাম্প্রদায়িকতার বীজ এই দেশে ছড়িয়ে দিতে চায়, তারা দেশদ্রোহীতার শামিল বলে বিবেচিত হবে। তাদেরকে ভুলে গেলে চলবে না, এদেশে দেশদ্রোহীদের ফাঁসির দড়িতে ঝুলানো হয়েছে। এ সময় তিনি মামুনুল হকদের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিয়ারি দেন।’

লেখক ভট্টাচার্যের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয়, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here