আতঙ্কে গ্রাম ছাড়তে চায় হাথরাসে নির্যাতিতার পরিবার

0
11

ভারতের উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে ধর্ষণের পর মৃত্যুবরণ করা নির্যাতিতা দলিত তরুণীর পরিবার গ্রামে ‘নিরাপত্তার অভাব’ বোধ করছে । সে কারণে তাদের হাথরাসের গ্রামের বাড়ি ছেড়ে দিল্লি গিয়ে আশ্রয় নিতে চায় পরিবারটি। দিল্লিতে থেকেই মেয়ের জন্য ন্যায়বিচার আদায়ের লড়াই চালিয়ে যেতে চান ওই পরিবারের সদস্যরা।

জানা গেছে, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকে চারপাশ থেকে উচ্চবর্ণের লোকজনদের শাসানি শুনতে হচ্ছে পরিবারের সদস্যদের। বিজেপির একাধিক নেতাও পরিবারটিকে দোষারোপ করেছে এবং অভিযুক্তদের হয়ে সাফাই গেয়েছেন।

বয়ান বদলাতে পুলিশ-প্রশাসনের চাপও সহ্য করতে হচ্ছে তাদের। এসব কারণে ভীত-সন্ত্রস্ত দলিত পরিবারটি হাথরসের গ্রামে আর থাকার সাহস পাচ্ছে না।

১৯ বছর বয়সী ওই তরুণীর ভাই জানান, তারা সপরিবার দিল্লিতে চলে গিয়ে সেখান থেকেই ন্যায়বিচার আদায়ে লড়াই চালিয়ে যেতে চান। তিনি বলেন, নিরাপত্তার কারণে আমরা হাথরাসে আর থাকতে চাই না।

তাদের পরিবারের আইনজীবী সীমা কুশওয়াও এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনৌ বেঞ্চে জানিয়েছেন, ধর্ষণ-খুনের মামলাটি উত্তরপ্রদেশের বাইরে সরানোর অনুমতি দেওয়া হোক। নিরাপত্তা নিয়ে ভয় পাচ্ছে পরিবারটি। মামলা চলাকালীন হাথরাসের নির্যাতিতার পরিবারের জন্য নিরাপত্তারক্ষী দেওয়ার আবেদনও জানান তাদের আইনজীবী।

এদিকে, পরিবারটির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এসডিএম অঞ্জলি গাঙ্গওয়ার গতকাল শনিবার হাথরাসের ওই পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন। নিরাপত্তা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের তিনি আশ্বস্ত করে এসেছেন। সেই সঙ্গে সাপ্তাহিক রেশন ও পশুখাদ্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও তিনি দিয়েছেন।

মৃত তরুণীর বাবা জানান, তিনি চাষের জমিতে গিয়ে কাজ করতে চান। এসডিএম সে অনুমতিও দিয়েছেন। পুলিশ পাহারায় তিনি জমিতে যাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here