ইউরোপের কট্টর ডানপন্থী এমপিদের ডেকে কাশ্মীর দেখাল ভারত

0
110

বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর আন্তর্জাতিক প্রতিনিধি হিসেবে অধিকৃত কাশ্মীর সফরে এসেছেন ইউরোপের বিভিন্ন দেশের কট্টর ডানপন্থী দলের প্রায় ৩০ জন এমপি। মঙ্গলবার ইউরোপের বিভিন্ন দেশের কট্টর ডানপন্থী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অন্তত ৩০ জন এমপি ভারতের বেসরকারি একটি সংস্থার আমন্ত্রণে কাশ্মীর সফর করছেন।

গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর থেকে কার্যত অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছে এই উপত্যকা। ভারত সরকারের সমর্থনে ইউরোপের এই এমপিরা কাশ্মীর সফরে গেলেও ইউরোপীয় পার্লামেন্ট এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের সংশ্লিষ্টতা না থাকায় সফর নিয়ে কিছু কূটনৈতিক প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

সোমবার পর্যন্ত নয়াদিল্লিতে অবস্থিত ইউরোপীয় ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি দেশের দূতাবাসও এই সফরের ব্যাপারে জানতো না। গত প্রায় ৩০ বছর ধরে মুসলিম অধ্যুষিত কাশ্মীরে আন্দোলন চলছে। হিমালয় অঞ্চলের এই উপত্যকার নিয়ন্ত্রণ আরও দৃঢ় করতে নয়াদিল্লি সরকারের নেয়া নতুন পদক্ষেপের ফলে আন্তর্জাতিক কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছে কাশ্মীর।

নয়াদিল্লিতে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যরা আনুষ্ঠানিক সফরে ভারতে আসেননি এবং বেসরকারি একটি গ্রুপের আমন্ত্রণে এখানে এসেছেন তারা। আমরা তাদের জন্য কোনো ধরনের বৈঠকেরও আয়োজন করছি না।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশের যে এমপিরা এসেছেন তারা মূলত পোলান্ড, ফ্রান্স এবং ব্রিটেনের কট্টর ডাপন্থী রাজনৈতিক দলের সদস্য। সোমবার নয়াদিল্লিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করেছেন তারা।

মঙ্গলও বুধবার কাশ্মীর সফর শেষে নয়াদিল্লিতে ফিরবেন ইউরোপের এই এমপিরা। ভারত সরকার বলছে, জম্মু, কাশ্মীর এবং লাদাখ অঞ্চলের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক বৈচিত্রতা নিয়ে ভালো বোঝাপড়ায় সহায়তা করাই এই সফরের লক্ষ্য।

কয়েক দশকের স্বায়ত্ত্বশাসন বাতিলের পর কাশ্মীরের বিভিন্ন অংশে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ভারতের ক্ষমতাসীন সরকার। বিশৃঙ্খলার আশঙ্কায় টেলিফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়।

সম্প্রতি কাশ্মীরের কড়াকড়ি শিথিল করে টেলিফোন সংযোগ পুনর্স্থাপন করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ভারত সফরত ফ্রান্সের কট্টর ডানপন্থী রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল র্যালির সদস্য ও দেশটির পার্লামেন্টের সদস্য থিয়েরি মারিয়ানি বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, তারা আমাদের যা দেখাতে চায় কাশ্মীরের সেই পরিস্থিতি দেখতে সেখানে যাচ্ছি।

সূত্র : ডন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here