পাবজি খেলার চিন্তায় কিশোরের মৃত্যু

0
17

‘ব্লু হোয়েল’র মতো মরণ খেলা নয়। নিতান্তই সৈনিকের বীরত্বে ভরপুর। কিন্তু সেই ভিডিও গেমই কেড়ে নিল ১৬ বছরের তাজা প্রাণ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের নিমাচ এলাকায়।

এই মুহূর্তে অন্য সব ভিডিও গেমকে পিছনে ফেলেছে পাবজি। কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় ভারতজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। পরিবারের এক সদস্যের বিয়ের নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে মধ্যপ্রদেশের নিমাচ এলাকায় গিয়েছিল ১৬ বছরের ফারকান কুরেশি। ফারকান রাজস্থানের নাসিরাবাদ শহরের বাসিন্দা।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, নাওয়া-খাওয়া ভুলে টানা ছ’ঘণ্টা পাবজিতে মগ্ন ছিল ফারকান। তারপরই অসুস্থ হয়ে পড়ে। হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষরক্ষা হয়নি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ফারকানকে যখন নিয়ে আসা হয়, তখন তার পালস পাওয়া যাচ্ছিল না।

কার্ডিওলজিস্ট অশোক জৈনের মতে, অনেক সময় খেলার উত্তেজনা চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছলে হার্ট তার ধাক্কা সামলাতে পারে না। এক্ষেত্রেও তাই হয়েছে।

নিয়মিত পাবজি খেলেন তেমনই একজনের কথায়, উত্তেজনায় ভরপুর এই মোবাইল গেম। মোবাইলের স্ক্রিনে শত্রুপক্ষের অসংখ্য সৈন্যকে কাবু করার দায়িত্ব থাকে মোবাইল হাতে খেলোয়াড়ের। সঙ্গে দেওয়া হয় ভার্চুয়াল অস্ত্রও। প্রয়োজন মতো অস্ত্র ব্যবহার করে মোবাইলের স্ক্রিনে শত্রু নিধন করতে হয়। যত সময় ধরে খেলা চলতে থাকে ততই উত্তেজনা বাড়ে। রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনার মধ্যে শত্রুসেনার মোকাবেলা করার চাপ নেহাত কম নয়। এই চাপই সহ্য করতে পারেনি ফারকান।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মোবাইলে লাগাতার ওই ভিডিও গেম খেলতে থাকায় ঘাড়ের কাছের সব নার্ভ নষ্ট হয়ে কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। তাতেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে ওই তরুণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here