ভারত থেকে ফেনসিডিল এনে ঢাকায় নতুন বোতলে বিক্রি, গ্রেফতার ২

0
21

দিনাজপুর সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে বোতলজাত ও খোলা ফেনসিডিল কিনে এনে রাজধানী ঢাকায় নতুন করে বোতলজাত করে বিক্রি করছে একটি চক্র। বেশি লাভের আশায় পানি মিশিয়ে এক বোতল থেকে একাধিক বোতলে ফেনসিডিল বিক্রি করছে চক্রটি। রাজধানীর একটি বাসায় বসেই নতুন বোতলে ফেনিসিডিল প্রক্রিয়াজাত করে আসছিল তারা।

রাজধানীর হাতিরঝিল থানাধীন মগবাজার রেলগেট এলাকার এসকে টাওয়ারের সামনে থেকে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের পর এমন তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সোমবার রাত পৌনে ১১টার দিকে ডিএমপির ডিবি পশ্চিমের অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিমের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) হান্নানুল ইসলামের নেতৃত্বে গোয়েন্দা দল তাদের গ্রেফতার করা হয়।

f

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মো. বিপ্লব হোসেন ওরফে রুবেল (৩২) ও মো. ফারুক হোসেন (২৬)। তবে সুকৌশলে পালিয়ে যায় প্রাইভেটকারের চালক। জব্দ করা হয় প্রাইভেটকারসহ দুইশ বোতল ফেনসিডিল, ২১ লিটার জার ফেনসিডিল এবং ৫০টি খালি বোতল। বিপ্লবের বাড়ি দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে আর ফারুকের বাড়ি একই জেলার হাকিমপুরে।

ডিবি পশ্চিমের অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিমের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) হান্নানুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে তথ্য ছিল, মগবাজার হয়ে একটি প্রাইভেটকারে ফেনসিডিলের চালান বিক্রির উদ্দেশে তেজগাঁও সাতরাস্তার দিকে আনা হচ্ছে। ওই খবরে আমাদের একটি দল মগবাজার রেলগেটে অবস্থান নেয়। রাত পৌনে ১১টার দিকে প্রাইভেটকারটি আসা মাত্র ওই দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় প্রাইভেটকারসহ ফেনসিডিল ও খালি বোতল, কর্ক ও ফেনসিডিলের বোতলের মুখ খোলা ও লাগানোর জন্য বিশেষ চিরুনি জব্দ করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা জানায়, জব্দকৃত ফেনসিডিল তারা পরস্পরের যোগসাজশে দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে সংগ্রহ করে রাজধানীর হাতিরঝিল থানা এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছিল।

f

জব্দকৃত ফেনসিডিলের বোতল, প্লাস্টিকের পাত, চিরুনি ও কর্ক সম্পর্কে তারা জানায়, এসব সরঞ্জাম ব্যবহার করে তারা নিজেরাই ফেনসিডিল বোতলজাত করে বিক্রি করে। এর আগেও একাধিকার তারা ফেনসিডিলের বড় বড় চালান প্রাইভেটকারে ঢাকায় এনে বিক্রি করেছে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় মাদক আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং ৩৩। মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ড চাওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here