পরিদর্শনে গিয়ে নিম্নমানের ইট বিক্রি করে দিলেন ইউএনও

0
27

প্রশাসনের সতর্ক বার্তা উপেক্ষা করে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের ইট ব্যবহারের অভিযোগে এক হাজার ইট জব্দ করে নিলামে বিক্রি করা হয়েছে। রোববার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুম রেজা জব্দকৃত ওই ইট সাড়ে ৪ হাজার টাকায় নিলামে বিক্রি করে দেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অধিদফতরের আওতাধীন উপজেলার নারুয়া ও নবাবপুর ইউনিয়নে ৬৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ইটের সোলিং দ্বারা দেড় কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নের কাজ পায় মেসার্স রহিম ট্রেডার্স। তারই ধারাবাহিকতায় কাজ শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

এলাকাবাসী জানান, কাজের শুরু থেকেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের ইট ব্যবহার করছিল। এ সময় তারা কাজে বাঁধা দিলেও কোনো লাভ হয়নি। পরে তারা বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ও নারুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তারা নির্মাণ কাজের স্থান পরিদর্শন করেন এবং খারাপ ইট তুলে ভালো ইট ব্যবহার করতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও ঠিকাদার নিম্নমানের ইট ব্যবহার করেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, কাজের শুরুতেই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের ইট ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। অভিযোগের পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ তিনি ঠিকাদারকে সতর্ক করেছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাসুম রেজা বলেন, ঠিকাদারকে ভালো মানের ইট ব্যবহারের নির্দেশ দেয়া সত্ত্বেও নিম্নমানের ইট ব্যবহার করায় সরেজমিনে গিয়ে ১ হাজার নিম্নমানের ইট জব্দ করা হয় এবং প্রকাশ্যে তা নিলামে সাড়ে ৪ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। পরে ভালো মানের ইট ব্যবহারের জন্য ঠিকাদারকে আবারো সতর্ক করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here